রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৪:৪৯ অপরাহ্ন

শীর্ষ সংবাদ :
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা বৃদ্ধি : সিলেটে কমে আসছে অপরাধ প্রবনতা আরিফ আজাদের বই বিক্রিতে কেন বাধা! -মুহাম্মদ রাশেদ খান সিলেটে সুরমার বুক কেটে কোটি কোটি টাকার বাণিজ্য গোবিন্দগঞ্জে টি-টেন ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ সম্পন্ন বালিটেকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস পালন মাজার জিয়ারতে আগতদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা চান মেয়র আরিফ মা যাদের রান্না করে খাওয়াতেন তারাই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছেন সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও বিশ্বনাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত সিলেটে বাসায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ, ফিলিপাইনি তরুণীর সাথে ফ্রেমবদ্ধ ছবি উদ্ধার ‘ধনীদের উচিত গরীবদের বিয়ে করা’- ইন্দোনেশিয়ার সংস্কৃতিমন্ত্রী
চীনের উহান থেকে দেশে ফেরার পর করণীয়

চীনের উহান থেকে দেশে ফেরার পর করণীয়

ড. মোঃ এনামুল হকঃ ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সরকার, উহানবাসী এবং বেইজিং এম্বাসি আমাদেরকে দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য যে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তা অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখে। আমরাও নিরাপদে দেশে ফিরে যেতে চাই। তবে এসময়ে দেশে ফিরে যাওয়ার পূর্বে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে :

১) চায়না থেকে বের হওয়ার পূর্বেই ১০০% নিশ্চিত হওয়া আমরা কেউ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত নই।

২) বিশেষজ্ঞদের মতানুসারে দেশে সবাইকে পুনরায় পরীক্ষা করা। পরীক্ষার প্রয়োজনে যদি আমাদের বিমানবন্দরে ২, ৫, ৭, ১০, ১৪ দিনও থাকতে বলা হয় তাহলে ধৈর্য সহকারে সেখানে থাকা। তবে দেশে ফেরার পূর্বে অবশ্যই কর্তৃপক্ষকে এটা নিশ্চিত করতে হবে তারা আমাদের থাকার জন্য সুব্যবস্থা করবেন এবং এজন্য আমরা অবশ্যই টাকা প্রদান করব।

৩) এই পরীক্ষাচলাকালীন সময়ে কোনোভাবেই আগে বাড়ি পৌঁছাতে কোনোরকম তদবির করা যাবে না। কারণ, অস্ট্রেলিয়াতে একজন আক্রান্ত ব্যক্তি পাওয়া গেছে। উহান থেকে যাওয়া ওই যাত্রী এ ভাইরাসে আক্রান্ত ছিল, কিন্তু বিমানবন্দরে স্ক্রিনিংয়ের সময় ধরা পড়েনি। অস্ট্রেলিয়ার মতো বিমানবন্দরে যদি তাৎক্ষণিকভাবে ধরতে না পারে তাহলে আমাদের বিমানবন্দরে কী হবে এটা ভাবার বিষয়!

৪) আরও একটা বিষয় মনে রাখতে হবে শুধু জোশের সাথে ভাবলে হবে না, হুঁশের সাথে ভেবেচিন্তে কাজ করতে হবে এবং সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

৫) সন্দেহ নেই আমাদের দেশে এখনও অনেক সীমাবদ্ধতা আছে। তাই আমরা যখন একসাথে ৩০০-৪০০ মানুষ দেশে ফিরব তখন সঠিকভাবে কোয়ারানটাইন করা হবে কি-না এটা নিশ্চিত করতে হবে।

এবার আসি কোয়ারানটাইনের কথায়। আমরা দেশে ফেরার সময় যখন সবাই বিমানবন্দরে যাব তখন চীনা নাগরিকদের সঙ্গে আমাদের ইন্টারেকশন হবে। তাই ওই দিন থেকে নতুন করে আবার ১৪ দিনের জন্য কোয়ারানটাইন শুরু করতে হবে। আমরা যারা বাচ্চা এবং পরিবার নিয়ে ফিরব তাদের জন্য সুব্যবস্থা এবং পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। শেয়ালের খাঁচা থেকে বাঘের খাঁচায় ঝাঁপ দেওয়ার মতো যেন না হয়!

আমার পরিচিত একজন উহান থেকে দেশে ফিরেছেন এই মাসের ২২ তারিখ রাতে। ওনার সঙ্গে কথা হলো এবং উনি জানালেন সামাজিকভাবেও কিছুটা হেয় প্রতিপন্ন হতে হচ্ছে। কারণ ওনাকে অনেকেই বলছেন, তুমি উহান ভাইরাস (করোনা) নিয়ে আসছ নাকি! তাই আমাদেরকে মানসিকভাবে শক্ত থাকতে হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Bditfactory.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ