শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৩:৩৪ অপরাহ্ন

চৌর্যবৃত্তি প্রমাণিত হওয়ার পরও তিনি প্রফেসর!

চৌর্যবৃত্তি প্রমাণিত হওয়ার পরও তিনি প্রফেসর!

ডেইলি সিলেট মিডিয়াঃ গবেষণা আর্টিকেলে চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পরও আপগ্রেডেশন পেয়ে প্রফেসর হয়েছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) ইংরেজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষক ড. মো. শাহাজাহান কবীর। এতে হতাশ হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকরা।

তদন্ত কমিটি সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ৮ নভেম্বর আপগ্রেডেশনের আবেদন করেন ইংরেজি ডিসিপ্লিনের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শাহাজাহান কবীর। তৎকালীন ডিসিপ্লিনপ্রধান ড. সাবিহা হক পর্যবেক্ষণ শেষে উল্লেখ করেনÑ ড. মো. শাহাজাহান কবীরের গবেষণা আর্টিকেলের চারটি প্যারা ভিন্ন উৎস থেকে নেওয়া হয়েছে এবং তা চৌর্যবৃত্তি বলে অভিযোগ করেন তিনি।

অভিযোগ খতিয়ে দেখতে খুবি কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা সেলের পরিচালক প্রফেসর একে ফজলুল হককে সভাপতি, অধ্যাপক ড. দিলীপ দত্ত ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. এসএম রফিজুল হককে সদস্য করে তদন্ত কমিটি গঠন করে। সেই কমিটির কাছে ড. কবীর চৌর্যবৃত্তি করেননি বলে নিজের পক্ষে তথ্য উপস্থাপন করেন।

তদন্ত সূত্র জানায়, আর্টিকেলের চারটি প্যারার মধ্যে দুটি আগেই অন্য ওয়েবসাইটে ২০০৪ সালের আগস্ট মাসে প্রকাশ হয়। আর ড. কবীরের আর্টিকেল প্রকাশ হয় ২০১১ সালে।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, ড. কবীরের প্রকাশিত অভিযোগটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। ২০১৮ সালের ৫ মার্চ কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।

চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ার পরও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শাহাজাহান কবীরকে প্রফেসর হিসেবে আপগ্রেডেশন দেয়। একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সারোয়ার জাহান, আবদুল্লাহ আল মামুন ও সামিউল হক একই সঙ্গে একই যোগ্যতায় আবেদন করলেও বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবদুল্লাহ আল মামুন এবং সামিউল হককে আপগ্রেডেশন প্রদান করলেও ওই বিভাগের সবচেয়ে সিনিয়র শিক্ষক সারোয়ার জাহানকে আপগ্রেডেশন দেয়নি।

ফার্মেসি বিভাগের প্রফেসর ড. মো. আমিরুল ইসলাম এ ব্যাপারে বলেন, চৌর্যবৃত্তির ঘটনা ঘটে থাকলে তা অনৈতিক। এটি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

প্রফেসর ড. শাহাজাহান কবীর বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে, তা সঠিকও নয়। আমি তদন্ত কমিটির কাছে সব কিছু উপস্থাপন করেছি। প্রমোশনও পেয়েছি। আসলে এ ব্যাপারে আমার কিছু বলার নেই। বিশ^বিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সব কিছু বিবেচনা করে তার পর আমার আপগ্রেডেশন দিয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Bditfactory.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ