শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০৭:০২ অপরাহ্ন

প্রগতিশীল ভাব আর বিজ্ঞানে ঈমান হারিয়ে ফেলতেছি না তো! -মেহেদী হাসান

প্রগতিশীল ভাব আর বিজ্ঞানে ঈমান হারিয়ে ফেলতেছি না তো! -মেহেদী হাসান

আল্লাহ তার বান্দার ঈমানি পরীক্ষা নেয়ার জন্য অনেক বিপদ আপদের সম্মুখীন করান।যুগে যুগে এভাবে আল্লাহের মুমিন বান্দারা ঈমানি পরীক্ষা দিয়ে আসছেন।আবার, যখন পাপের মাত্রা বেড়ে যায় তখনও আল্লাহ তার বান্দাদের উপর গজব দিয়ে থাকেন।বিগত কয়েকদিনের পরিস্থিতি দেখে মনে হয়, করোনা থেকে যে একমাত্র আল্লাহ ই পারেন আমাদের মুক্তি দিতে তা অনেকেই ঘুর্ণাক্ষরেও মাথায় রাখছেন না।

এমন অনেক ভাইরাসবাহী রোগ আছে, যার ভ্যাক্সিন আজো আবিষ্কার হয়নি (ক্যান্সার/এইডস), কিংবা ১৫/২০ বছর টানা গবেষণার পর সেটা আর সামনেই আগায় নি (সার্স)।কি হবে যদি, করোনার ভ্যাক্সিন ই আবিষ্কার না হয়? এমন নজির তো অহরহ আছে। তাহলে কি আমরা সায়েন্স মেনে সারাজিবন লক ডাউনেই বসে থাকবো? কিংবা সায়েন্স মেনেও যেই ব্যক্তি শুরু থেকেই হোম কোয়ারেন্টাইন থেকেও করোনা পজিটিভ, সে কি বলবে/করবে? একবার চিন্তা করি, বেশি প্রগতিশীল ভাব নিয়ে আর বিজ্ঞান বিজ্ঞান করে ঈমান টাই হারিয়ে ফেলতেছি না তো!

যাদের কে রাসূল (সাঃ) এর ওয়ারিশ বলা হচ্ছে, সেই আলেমগনকে যাচ্ছেতাই বকাবকি দিতেও কলিজা কাপছেনা।বুঝতেছেন তো কি করার কথা, আর কি করছি আমরা? এখনো সময় আছে, আসুন সবকিছুর জন্য আল্লাহর মুখাপেক্ষী হই।একমাত্র আল্লাহর ইচ্ছা হলেই, উনি তার বান্দাদের রক্ষা করবেন।একমাত্র আল্লাহ সুবাহানাহু তায়ালা চাইলেই মানুষের মধ্যে সেই জ্ঞানের সঞ্চার হবে, যেই জ্ঞান দিয়ে এই ভাইরাসের মোকাবেলা করা যাবে কিংবা ভ্যাক্সিন আবিষ্কার করা যাবে।কারণ বিজ্ঞান, ধর্ম বা সৃষ্টিকর্তাকে সৃষ্টি করেনি। বরং মানবজাতির জন্য, সৃষ্টিকর্তার ই একটা নেয়ামত হলো, বিজ্ঞান। সোশাল ডিস্টেন মেনটেইন করেন, ঈমানী ডিস্টেইন্স না।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Bditfactory.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ