বৃহস্পতিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২০, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন

অর্ধসেদ্ধ মাছ খেয়ে পেটে ব্যথা, অর্ধেক লিভার খেল মাংসাশী পরজীবী!

অর্ধসেদ্ধ মাছ খেয়ে পেটে ব্যথা, অর্ধেক লিভার খেল মাংসাশী পরজীবী!

সিলেট মিডিয়া ডেস্কঃ চীন ও চীনাদের খাবার নিয়ে গত কয়েক মাস ধরে সারা বিশ্বে আলোচনার শেষ নেই। চীনাদের খাদ্যাভাস নিয়ে সারা বিশ্বে সমালোচনা শুরু হয়েছে। বন্যপ্রাণীদের মাংস থেকে শুরু করে বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ, পোকা মাকড়। কিছুই বাদ দিচ্ছে না চীনারা। তবে করোনাভাইরাস মহামারীর আকার নেয়ার পর থেকে চীনে বন্যপ্রাণীদের বিক্রি বন্ধ হয়েছে।

তবে, ফের সংবাদ শিরোনামে এলো চীন। আবারও এক ভয়ঙ্কর কাণ্ড! জানা যায়, বাজার থেকে মাছ কিনে এনেছিলেন এক যুবক। সেই মাছটিকে তিনি অর্ধেক সেদ্ধ অবস্থায় রান্না করেছিলেন। খাওয়ার দু’দিন পর থেকেই তার পেটে অসহ্য ব্যথা শুরু হয়। সেই সঙ্গে বমি, মাথা ব্যথা, ওজন কমার মতো লক্ষ্ণণ দেখা দেয়।

এরপরই তিনি চিকিৎসকের কাছে যান। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তি যে মাছ খেয়েছিলেন তার লিভারের স্ক্যান করতেই মাথায় হাত পড়ে চিকিৎসকদের। স্ক্যান করে দেখা যায়, মাংশাসী পরজীবীরা তার লিভারের প্রায় অর্ধেকটাই খেয়ে ফেলেছে। ফলে তার লিভারের আকার বেড়ে যাচ্ছিল অস্বাভাবিকভাবে। এমনকী তার লিভারের ভিতর বালবের আকারের টিউমার বাড়তে শুরু করেছিল।

চিকিৎসকরা তার লিভারের অবস্থা দেখে চমকে উঠেন। মাংশাসী পরজীবী তার লিভারের অর্ধেক খেয়ে ফেলে। স্ক্যান রিপোর্টে দেখা যায়, তার লিভারের ভিতরে পুঁজ জাতীয় কিছু জমেছে। আর লিভারের প্রায় অর্ধেক খেয়ে ফেলেছে পরজীবী। সারা লিভারজুড়ে পরজীবীর ডিম ভরে গেছে।

এমন অবস্থা দেখে চিকিৎসকদেরও মাথায় হাত। যদিও তড়িঘড়ি তার লিভারে অস্ত্রপোচার করে সেটিকে শরীর থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। পুরো ঘটনা দেখে অবাক হয়ে গিয়েছেন চিকিৎসকরাও।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, যুবক মাছটি খাওযার পর সেই পরজীবী ওই ব্যক্তির শরীরে আশ্রয় নেয়। লিভারজুড়ে পরজীবীর ডিম থিকথিক করছে। তবে কোনও পরজীবীর বাসা বাধার ঘটনা একেবারেই নতুন। তবে মাংশাসী পরজীবীদের আচরণ দেখে চিকিৎসকরাও অবাক হয়েছেন।

দিন কয়েক আগে ছড়িয়েছে বিউবনিক প্লেগ। ক’‌দিন আগেই চীনের প্রশাসনিক পক্ষ থেকে স্বীকার করে নেওয়া হয়েছিল, সেখানে ছড়িয়ে পড়েছে বিশেষ এক ধরনের প্লেগ। যাকে বলা হচ্ছে বিউবনিক প্লেগ। সেটি করোনার থেকেও ভয়ানক মনে করছেন অনেকে। আর এবার কাঁচা মাছ খাওয়ায় ফের শিরোনামে এলো চীন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 Bditfactory.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ