শনিবার, ১৯ Jun ২০২১, ১২:০০ অপরাহ্ন

শীর্ষ সংবাদ : :
করোনা ভ্যাক্সিন সহজলভ্য করতে জাতিসংঘকে ভূমিকা নিতে বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাহিরপুরে যাদুকাটা নদীতে নৌকা ডুবে নিখোঁজ এক বিজয় নিশ্চিত করতে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে : এড. নাসির খান মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট জেলা ইউনিটের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত সিলেটে ‘ডেভেলপ আওয়ার বিজনেস বাই স্টোরি সেলিং’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচী সিলেটে যেসব এলাকায় শুক্রবার বিদ্যুৎ থাকবে না চা শ্রমিকদের মজুরী নির্ধারণের দাবীতে সিলেট ভ্যালীর আলোচনা সভা সাবেক মেয়র কামরানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সিলেট জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল উন্নয়নের স্বার্থে দলের টানে সবাই আজ এক মোহনায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট জেলা ইউনিটের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ : ৭ মাসেও আলো দেখেনি তদন্ত কমিটি সিলেটের গোয়াইনঘাটে মাসহ দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যা আজ থেকে ট্রাফিক পক্ষ শুরু হচ্ছে সিলেটে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন হাবিবুর রহমান কামরানের ১ম মৃত্যু বার্ষিকীতে জেলা আওয়ামী লীগের মিলাদ মাহফিল বড়লেখায় দৌলতপুর ওয়েলফেয়ার সোসাইটির পক্ষ থেকে নির্মাণাধীন মসজিতে নগদ অর্থ প্রদান বিএনপি নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা রাজ্জাকের রোগমুক্তি কামনা করেছেন নাসিম বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বপন কুমার রায়ের পরলোক গমন সিলেট সদর দলিল লেখক সমিতির আয়োজনে সিলেট সদর সাবরেজিস্ট্রার পারভীন আক্তারের বিদায় সংবর্ধনা ‘মান্নান আমার বন্ধু’ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফেসবুক স্ট্যাটাস
এমসি কলেজের অধ্যক্ষ ও হোস্টেল সুপারকে বরখাস্তের নির্দেশ

এমসি কলেজের অধ্যক্ষ ও হোস্টেল সুপারকে বরখাস্তের নির্দেশ

সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার কারণে কলেজের অধ্যক্ষ ও হোস্টেল সুপারকে বরখাস্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বুধবার রুলের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় জারি করা সুয়োমোটো রুলের ওপর আজ বুধবার রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্ট গত বছর ২৯ সেপ্টেম্বর সুয়োমোটোভাবে রুল জারি করেন। রুলে নিরাপরাধ গৃহবধূর নিরাপত্তা দিতে অবহেলা ও ব্যর্থতা এবং কলেজ ক্যাম্পাসে অছাত্রদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে এমসি কলেজের অধ্যক্ষ ও হল সুপারের নীরবতার কারণে তাঁদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়।

শিক্ষা, আইন ও স্বরাষ্ট্রসচিব, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, এমসি কলেজের অধ্যক্ষ, সিলেটের জেলা প্রশাসক, সিলেট মহানগর পুলিশের কমিশনার, হল সুপারসহ ৯ জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। এ রুলের ওপর গত ১১ মার্চ শুনানি সম্পন্ন হয়। এরপর আদালত যেকোনো দিন রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রাখার আদেশ দেন।

গতবছর ২৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে এমসি কলেজে বেড়াতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন গৃহবধূ। স্বামীকে বেঁধে মারধর করে ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ তাঁদের উদ্ধার করে। এরপর ওই দিন রাতেই শাহপরাণ থানায় মামলা করেন নির্যাতিতার স্বামী। মামলায় ছয়জনের নাম উল্লেখ এবং আরও অজ্ঞাতনামা দু-তিনজনকে আসামি করা হয়।

আসামিরা হলো এম. সাইফুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, তারেক আহমদ, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান। এরা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। আসামিদের মধ্যে তারেক ও রবিউল বহিরাগত, বাকিরা এমসি কলেজের ছাত্র। ওই ঘটনায় একাধিক তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। এর মধ্যে সিলেটের জেলা ও দায়রা জজের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের কমিটির ১৭৯ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন গতবছর ২০ অক্টোবর হাইকোর্টে দাখিল করা হয়। ওই প্রতিবেদনে কলেজের অধ্যক্ষ, দুজন তত্ত্বাবধায়ক এবং নিরাপত্তা কর্মীদের দায়ী করা হয়।

পরবর্তীকালে মামলায় গত বছর ৩ ডিসেম্বর সাইফুর রহমানসহ ছাত্রলীগের আট নেতাকর্মীকে আসামি করে আদালতে পৃথক দুটি অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়—একটি ধর্ষণের অভিযোগে এবং অপরটি ছিনতাইয়ের অভিযোগে দেওয়া হয়। এর মধ্যে ধর্ষণের অভিযোগের মামলাটি সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে গত ১৭ জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। আর, ছিনতাইয়ের অভিযোগের মামলা সিলেট দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন।

এ অবস্থায় হাইকোর্ট গত ৭ ফেব্রুয়ারি এক আদেশে উভয় মামলা একই আদালতে বিচার করার নির্দেশ দেন।

সূত্র :: এনটিভি
ডেসিমি/ডেস্ক/ইই





© All rights reserved © 2018 dailysylhetmedia
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ